News before News

সারোয়ার হেলাল সাজনুর মাতার জানাযা : দোয়া চাইলেন শামীম ওসমান

নারায়ণগঞ্জ শহর আওয়ামীলীগের প্রয়াত সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম সারোয়ারের মা মনোয়ারা বেগমের (৮৪) জানাযা সম্পন্ন হয়েছে। ১১ এপ্রিল বুধবার আছর নামাজের পর চাষাঢ়ায় (চাষাঢ়া গোলচত্ত্বর) রাজনৈতিক নেতাকর্মীসহ বিভিন্নস্তরের নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে এই জানাযা সম্পন্ন হয়।

মনোয়ারা বেগম মৃত্যুকালে ৩ ছেলে ও ৩ মেয়েসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। তাঁর দুই ছেলে বর্তমানে মহানগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদে জাকিরুল আলম হেলাল ও শহর যুবলীগের সভাপতি পদে শাহাদাৎ হোসেন ভূঁইয়া সাজনু দায়িত্ব পালন করছেন।

জানাযায় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আবদুল হাই, সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ বাদল, মহানগর আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি চন্দন শীল, যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজাম, জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল, পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট ওয়াজেদ আলী খোকন, সোনারগাঁ থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সামছুল ইসলাম ভূইয়া, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাষ্ট্রিজের পরিচালক খালেদ হায়দার খান কাজল, মহানগর শ্রমিকলীগের সভাপতি কামরুল হাসান মুন্না ও মহানগর কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জিল্লুর রহমান লিটনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী সমর্থকরা।

জানাযাপূর্ব বক্তৃতায় শামীম ওসমান বলেন, হেলাল ও সাজনুর মা একজন মহিয়সী নারী ছিলেন। আজ থেকে তাদের মা নেই। যাদের মা-বাবা নেই একমাত্র তারাই বুঝেন মা-বাবার মর্যাদা। আমারও মা নেই। মাকে রেখেই আমার বড় ভাই পরপারে চলে গিয়েছিলেন। ঠিক তেমনিভাবে মাকে রেখেই হেলাল সাজনুর বড় ভাই সারোয়ার চলে গিয়েছিলেন। আপনারা তাদের মায়ের জন্য দোয়া করবেন যেমনিভাবে নিজের মায়ের জন্য দোয়া করেন। আমরা যারা আওয়ামীলীগ করি সকলেই এক পরিবারের সদস্য। যদি কেউ মরহুমার কথায় কষ্ট পেয়ে থাকেন তাহলে ক্ষমা করে দিবেন।

প্রসঙ্গত, বুধবার ১১ এপ্রিল সকাল ৬টা ৪০ মিনিটে রাজধানী ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

আপনার এগুলো পছন্দ হতে পারে