News before News

ফতুল্লায় শিক্ষিকাকে লাঞ্ছনায় আইনজীবী জেলহাজতে

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় নারী শিক্ষিকার বাড়িতে ঢুকে মারধর ও জুতাপেটা সহ লাঞ্ছনার অভিযোগে গ্রেফতার আইনজীবী আব্দুল মজিদ খন্দকারকে জেলহাজতে প্রেরন করেছে আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আশেক ইমামের আদালতে হাজির করে পুলিশ। এসময় শুনানী শেষে আদালত ওই আইনজীবীকে জেলহাতে প্রেরন করেন। এর সত্যতা নিশ্চিত করে কোর্ট পুলিশের এসআই কামাল হোসেন জানান, নারায়ণগঞ্জ কোর্টের একজন আইনজীবী ইন্তেকাল করায় মঙ্গলবার সকল কার্যক্রম বন্ধ ছিল। মজিদ খন্দকারকে বুধবার আদালতে হাজির করা হবে।

এরআগে সোমবার দুপুরে নির্যাতনের শিকার শাহীনূর পারভীনের বাবা সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে আইনজীবী আব্দুল মজিদ খন্দকার ও তার স্ত্রী রোকেয়া খন্দকারের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলাটি দায়ের করেন। এরপর একইদিন সন্ধ্যায় ফতুল্লার হাজীগঞ্জ নিজ বাসা থেকে পুলিশ মজিদ খন্দকারকে গ্রেফতার করে পুলিশ। মজিদ খন্দকার নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয়পার্টির সদস্য সচিব।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি কামাল উদ্দিন এর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, হাজীগঞ্জ এলাকার প্যাসিফিক ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের শিক্ষিকা শাহীনূর পারভীন শানুকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় মজিদ খন্দকারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত চলছে।

শিক্ষিকাকে মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করে আবদুল মজিদ খন্দকার জানান, আমি আর আমার স্ত্রী আমাদের নাতনিকে বাসায় গিয়ে পড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছি শাহীনুরকে। সে আমাদের মুখের উপর না করে দিয়ে অপমান করেছে। এনিয়ে মারধর হয়নি তর্ক হয়েছে। একটি চক্র সামাজিক ভাবে আমার মানসম্মান ক্ষুন্ন করতে ও আমাকে হয়রানী করতে তুচ্ছ ঘটনাকে ফুলিয়ে ফাপিয়ে বড় করে তুলেছে।

আপনার এগুলো পছন্দ হতে পারে